NarayanganjToday

শিরোনাম

নারায়ণগঞ্জে হচ্ছে না ‘দেশের তৃতীয় সর্ববৃহৎ’ ঈদ জামাত


নারায়ণগঞ্জে হচ্ছে না ‘দেশের তৃতীয় সর্ববৃহৎ’ ঈদ জামাত

শুরুর পরের বছর পরিধি বেড়েছিল। এবার পরিধি আরও বিস্তৃত করার স্বপ্ন ছিল। কিন্তু করোনা পরিস্থিতি সাংসদ শামীম ওসমানের সেই স্বপ্নে ভাগড়া দিয়েছে। বৈশ্বিক মহামারি করোনার কারণে এবার আর অনুষ্ঠিত হচ্ছে না সাংসদ শামীম ওসমানের উদ্যোগে বৃহত্তম ঈদ জামাত!

গণমাধ্যমকে তিনি জানিয়েছেন, গত বারের তুলনায় এ বছর ঈদ জামাতের পরিধি আরও বাড়ানোর পরিকল্পনা ছিল। এবার সামসুজ্জোহা ক্রীড়া কমপ্লেক্সসহ ওসমানী স্টেডিয়ামটাকে এর সাথে যুক্ত করার পরিকল্পনা করেছিলাম। এ নিয়ে ডিসি সাহেবের সঙ্গেও কথা হয়েছিল। কিন্তু শেষতক করোনা পরিস্থিতির কারণে সেটি আর এবার হয়ে উঠছে না।

এদিকে সূত্র জানিয়েছে, নারায়ণগঞ্জের সর্ববৃহৎ এবং দেশের বৃহত্তম তৃতীয় ঈদের জামাতের উদ্যোক্তা সাংসদ শামীম ওসমান। গত ২০১৮ সালে তার উদ্যোগে বৃহত্তম পরিসরে ঈদ জামাত হয়। এতে লাখো মানুষের সমাগমও ঘটে। সর্বমহল থেকে প্রশংসা কুড়িয়েছিলেন সাংসদ। মানুষের উৎসাহ আর উদ্দীপনায় পরবর্তী বছর এর পরিধি আরও বাড়িয়ে দেন শামীম ওসমান। সামসুজ্জোহা ক্রীড়া কমপ্লেক্স ও ঈদগাহ মিলিয়ে স্টিল স্ট্রাক্চারের মাধ্যমে নান্দনিক ডিজাইনে ঈদ জামাতের আয়োজন করেন এই সাংসদ।

ঈদ জামাতের ধারাবাহিকতায় এই বছর এর পরিধি আরও বিস্তারের পরিকল্পনাও করেছিলেন সাংসদ শামীম ওসমান। কিন্তু সেটি আর হয়ে উঠছে না করোনা পরিস্থিতির কারণে। তবে, আগামীতে পরিস্থিতি এমন থাকবে না। তখন ব্যাপকভাবেই পূর্বের থেকেও আরও বেশি নান্দিক ভাবে ঈদ জামাতের আয়োজন করার ইচ্ছেও রয়েছে সাংসদের।

এদিকে, শুধু যে এখানে তা নয়; এ বছর দেশের কোথাও হচ্ছে না ঈদ জামাত। ১৪ মে ধর্ম মন্ত্রণালয় থেকে এমনই প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে। স্থানীয় মসজিদগুলোতে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে ঈদের নামাজ আদায়ের কথা বলা হয়েছে ওই প্রজ্ঞাপনে। সেই সাথে এবার কোনো রকম কোলাকুলি এবং কর্মমর্দনেও নিরুৎসাহিত করা হয়েছে মন্ত্রণালয় থেকে।

১৫ মে, ২০২০/এসপি/এনটি

উপরে