NarayanganjToday

শিরোনাম

নারী কনস্টেবলের আপত্তিকর ছবি ভাইরাল, গ্রেফতার যুবক রিমান্ডে


নারী কনস্টেবলের আপত্তিকর ছবি ভাইরাল, গ্রেফতার যুবক রিমান্ডে

এক নারী পুলিশ কনস্টেবলের (২৪) আপত্তিকর ভিডিও ও ছবি ভাইরাল করার অভিযোগে গ্রেফতার হৃদয় খানকে একদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

শুক্রবার (০৪ জুন) দুপুরে পুলিশ গ্রেফতার যুবকের সাতদিনের রিমান্ড আবেদন করলে নারায়ণগঞ্জের জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম বেগম নূরুন্নাহার ইয়াসমিন এই রিমান্ড মঞ্জুর করে আদেশ দেন।

নারায়ণগঞ্জ কোর্ট পুলিশের পরিদর্শক মো. আসাদুজ্জামান রিমান্ডের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

হৃদয় খান কুমিল্লার দাউদকান্দি থানার সৈয়দখারকান্দি গ্রামের আলাউদ্দিনের ছেলে। তিনি সপরিবারে রাজধানীর রমনা থানার ৮২ মগবাজার এলাকায় বসবাস করেন।

এর আগে বৃহস্পতিবার রাতে রাতে ফতুল্লা মডেল থানায় ভুক্তভোগি ওই নারী কনস্টেবল হৃদয় খানের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করেন। পরে পুলিশ অভিযান চালিয়ে ঢাকার মগবাজার থেকে তাকে গ্রেফতার করে।

ভুক্তভোগি নারী কনেস্টেবল নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লার চানমারি এলাকার বাসিন্দা এবং কক্সবাজার জেলা পুলিশে কর্মরত। হৃদয় ওই নারী কনস্টেবলের সম্পর্কে আত্মীয় হন বলে মামলায় উল্লেখ করা হয়েছে।

এজাহার সূত্রে জানা গেছে, দুই বছর যাবত হৃদয় এবং নারী কনস্টেবলের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক চলে আসছে। হোয়াটস অ্যাপে একাধিকবার ভিডিও কলে কথা বলেছেন তারা। বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে হৃদয় ওই নারী কনস্টেবলের আপত্তিকর ছবি ও ভিডিও দেখেন এবং গোপনে তা রেকর্ড করে রাখেন। এছাড়াও সরাসরি দেখা হওয়ার পর ঘনিষ্ঠ মুহূর্তের কিছু ভিডিও ধারণ করে হৃদয়। পরে সম্পর্কের টানাপোড়েন হলে অনেকের নম্বর সংগ্রহ করে হোয়াটস অ্যাপে বিডি পুলিশ নামে গ্রুপ খুলে ওইসব ভিডিও ও ছবি গ্রুপে ছেড়ে দেন হৃদয়। পরে তা ভাইরাল হয়।

ওই নারী আরও উল্লেখ করেন, গত ২ জুন ছুটি পেয়ে তিনি নারায়ণগঞ্জের বাড়িতে এসে ৩ জুন সকাল ৯টায় হোয়াটস অ্যাপ চালু করেন। এ সময় বিডি পুলিশ নামে হোয়াটস অ্যাপ গ্রুপে দেখেন হৃদয় তার গোপন ও আপত্তিকর ভিডিও ছড়িয়ে দিয়েছে।

উপরে