NarayanganjToday

শিরোনাম

মেয়র আইভীর বিরুদ্ধে ওলামার সংবাদ সম্মেলন: ছিলেন না মসজিদ কমিটির কেউ


মেয়র আইভীর বিরুদ্ধে ওলামার সংবাদ সম্মেলন: ছিলেন না মসজিদ কমিটির কেউ

চাষাড়া বাগে জান্নাত মসজিদ ও সংলগ্ন মাদ্রাসা এবং মাসদাইর কবরস্থান সংলগ্ন মাদ্রাসা ইস্যুতে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের  মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী'র বিরুদ্ধে অভিযোগ এনে সংবাদ সম্মেলন করেছে নারায়ণগঞ্জ মহানগর ওলামা পরিষদ।
বৃহস্পতিবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে নগরীর সিনেমন রেস্টুরেন্টে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন নারায়ণগঞ্জ মহানগর ওলামা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মুফতি হারুনুর রশিদ। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন, সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন মহানগর উলামা পরিষদের সভাপতি মাওলানা ফেরদাউসুর  রহমান, সহসভাপতি মুফতি আনিস আনসারী, সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা মীর আহমদুল্লাহ, অর্থ সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন প্রমুখ। তবে সংবাদ সম্মেলনে বাগে জান্নাত মসজিদ, মাদ্রাসা এবং মাসদাইর কবরস্থান সংলগ্ন মাদ্রাসা কমিটির কোনো সদস্য উপস্থিত ছিলেন না। এছাড়াও সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের করা প্রশ্নের কোনো সদুত্তর দিতে পারেননি উপস্থিত নেতৃবৃন্দরা।
এসময় লিখিত বক্তব্যে মুফতি হারুনুর রশিদ বলেন, প্রাচ্যের ডান্ডিখ্যাত শহর নারায়ণগঞ্জ ব্যবসা-বাণিজ্য, শিল্প-কলকারখানা, গার্মেন্টস সহ বাংলাদেশের উৎপাদন উন্নয়নের অন্যতম প্রাণ শক্তি নারায়ণগঞ্জ। আপনারা নিশ্চই অবগত আছেন নারায়ণগঞ্জ ওলামা পরিষদ আলেম-ওলামা দ্বীন ইমান ও স্বীন সংশ্লিষ্ট বিষয়সহ দেশ জাতি ও উম্মাহর স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিষয়ে সব-সময় সোচ্চার ভূমিকা পালন করে আসছে। প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পর থেকে অধ্যবদি স্থানীয়, জাতীয় ও আন্তর্জাতিক ইস্যুতে অত্যন্ত কার্যকরী সােচ্চার ভূমিকা পালন করে আসছে আর তাই নারায়ণগঞ্জ ওলামা পরিষদ নারায়ণগঞ্জবাসী, স্থানীয় প্রশাসন, রাজণৈতিক দল ও নেতৃবৃন্দ সহ সাংবাদিক মহলে পরিচিত ও সমাদৃত একটি দ্বীনি সংগঠন। সম্প্রতি আমরা লক্ষ্য করলাম চাষাড়া নবাব সলিমুল্লাহ রােডস্থ বাগে জান্নাত জামে মসজিদ ও মাদরাসার নির্মাণাধীন স্থাপনার কাজ নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন কর্তৃক বন্ধ করে দেয়া হয়েছে, স্বয়ং মেয়র মহােদয়ের উপস্থিতিতে তা করা হয়। এছাড়াও ইতিপূর্বে মাসদাইর কেন্দ্রীয় কবরস্থানের মসজিদ সংলগ্ন দীর্ঘদিন যাবত পরিচালিত হাফেজীয়া মাদরাসা ও ইয়াতিমখানা উচেছদপূর্বক বিলুপ্ত করা হয়েছে। আমরা খোজ-খবর নিয়ে জানতে পেরেছি মাননীয় মেয়র মহােদয়ের নগ্ন হস্তক্ষেপে একটি চলমান হাফেজীয়া ও এতিমখানা মাদ্রাসা উচ্ছেদ করেন। স্থানীয় আলেম ওলামাগণ যখন মেয়র মহােদয়ের এই অন্যায় কার্যকলাপের প্রতিবাদ করলেন তাদেরকে তিনি ও তার লােকজন ব্যক্তিগত আক্রমন করতে থাকেন এবং নবায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন কর্তৃক মাসদাইর কেন্দ্রীয় কবরস্থান হাফেজীয়া মাদরাসা ও ইয়াজিম খানা উচ্ছেদ পূর্বক বিলুপ্তি, চাষাড়া বাগে জান্নাত দাওরায়ে হালাস মাদ্রাসায় নগ্ন মন্তক্ষেপ ও জনগণের দৃষ্টি মেয়রের অন্যায়-অপকর্ম থেকে সরিয়ে অন্য দিকে প্রবাহিত করার অপচেষ্টা চলমান।
লিখিত বক্তব্যে তারা ৫টি দাবী উপস্থাপন করেন।
দাবী গুলো হলো:
১। নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের কেন্দ্রীয় মাসদাইর কবরস্থান উচ্ছেদ করা হফেজীয়া এতিমখানা মাদ্রাসাটি অনতিবিলম্বে পুনঃনির্মান পূর্বক শিক্ষা কার্যক্রম চালু করতে হবে।
২। চাষাড়া নবাব সলিমুল্লাহ রােডছ বাগে জান্নাত মসজিদ ও মাদরাসাটির উপর হলে বন্ধ করতে হবে। মসজিদ ও মাদরাসা স্থাপনা নির্মান কাজ অতি দ্রুত সম্পন্ন করে মুসল্লিদের নাম আদায় ও ছাত্রদের শিক্ষা-কার্যক্রম অবাধ করতে হবে।
৩। মাদরাসা উচ্ছেদের অবৈধ সিদ্ধান্তের জন্য আলহাইয়াতুল উলইয়া লির জামিয়াতিল কওমীয়া বাংলাদেশ ও বেফাকুল মাদারিসিলি আরাবিয়া বরাবর ক্ষমা প্রার্থনা পূর্বক ভূল সিদ্ধানত প্রত্যহারের অবগতি পত্র দিতে হবে।
৪। স্বায়ত্বশাসিত প্রতিষ্ঠান নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র পদকে ব্যবহার করে শিরকী ও বিদআতী কার্যক্রম সম্প্রসারণের সমস্ত কার্যক্রম বন্ধ করতে হবে ।
৫। সিটি কর্পোরেশন এলাকার সমস্ত মসজিদ, মাদ্রাসা ইদগাহ কবরস্থানে সিটি কর্পোরেশনের অনুদান প্রাদন ও বরাদ্দ বৃদ্ধি করতে হবে।
এছাড়াও তারা বলেন, মেয়র আইভী নারায়ণগঞ্জকে সাজাতে চান তার জন্যে তাকে ধন্যবাদ। ব্যাক্তি আইভীর বিরুদ্ধে কোনো আক্রোশ নেই আমাদের। ওনার কিছু কর্মকান্ডের বিরুদ্ধে আমাদের আক্রোশ। আজকে আমাদের ন্যায্য দাবী আড়াল করে বিষয়টি অন্যখাতে নেয়ার চেষ্টা হচ্ছে। আমাদের ওলামা পরিষদের সম্মানিত সভাপতি মাওলানা আব্দুল আউয়াল সাহেবসহ ওলামা পরিষদের নেতৃবন্দের বিরুদ্ধে হুমকি-ধমকি বন্ধ করে বর্ণিত ইস্যুগুলােতে নেতিবাচক দৃষ্টি পরিহার করে সমাধানের দৃষ্টিতে দেখার আহ্বান জানাই। অন্যথায় নারায়ণগঞ্জের সর্বস্তরের জনগনকে সাথে নিয়ে বৃহত আন্দোলনের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টিতে এনে এ বিষয়ে সুরাহ করার উদ্যোগ আমরা গ্রহণ করব, ইনশাআল্লাহ।

উপরে