NarayanganjToday

শিরোনাম

দেওভোগে ছুরি-হেরোইনসহ দুর্ধর্ষ আসামি গ্রেফতার


দেওভোগে ছুরি-হেরোইনসহ দুর্ধর্ষ আসামি গ্রেফতার

হত্যা, অস্ত্র, ছিনতাই, মাদক, ডাকাতিসহ কয়েকটি মামলার আসামি দুর্ধর্ষ ফরহাদ ওরফে আহাদকে (৩৩) গ্রেফতার করেছে ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশ।

মঙ্গলবার (২ ফেব্রুয়ারি) রাতে দেওভোগের নাগবাড়ি এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। সে ওই এলাকার মৃত বিল্লাল হোসেনের ছেলে।

পুলিশ জানায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে দেওভোগ নাগবাড়ি এলাকার জনৈক বাদশা মিয়ার বাড়ির সামনে অভিযান চালিয়ে অভিযান চালিয়ে স্থানীয়দের সহযোগিতায় একটি ডাবল সুইচ গিয়ার ছুরি, নাইলনের দড়ি, ড্রিল মেশিন ও ২০ গ্রাম হেরোইনসহ তাকে গ্রেফতার করা হয়। তবে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে তার সহযোগী ৫-৬ জন পালিয়ে যায়। গ্রেফতার আসামির বিরুদ্ধে ডাকাতির চেষ্টা ও মাদক আইনে পৃথক দু’টি মামলা রুজু করা হয়েছে বলে জানায় পুলিশ।

ফরহাদ বাবুরাইল তাঁতীপাড়া এলাকার বিদ্যুৎ মিস্ত্রি অপু হত্যার এজাহারনামীয় আসামি। ওই মামলার এজাহারে বলা হয়, ২০১৯ সালের ২৩ আগস্ট সন্ধ্যায় পাওনা টাকা লেনদেনকে কেন্দ্র করে তাঁতীপাড়া এলাকার আজিজ মিয়ার ভাড়াটিয়া রমজান মিয়ার ছেলে বৈদ্যুতিক মিস্ত্রি অপুকে ছুরিকাঘাত করে হত্যা করে ফরহাদ ওরফে আহাদ ও তার সহযোগীরা। চলতি বছরের জানুয়ারিতে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে এক কিশোরীকে রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে দেওভোগ নাগবাড়ি এলাকার একটি মাঠে নিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। পুলিশ খবর পেয়ে অভিযান চালায়ে বিদেশী একটি পিস্তল ফেলে পালায় সে। এ ঘটনায় তার বিরুদ্ধে অস্ত্র মামলা দায়ের করা হয়েছিল। এ ঘটনার পর সে গ্রেফতার এড়াতে মাথার চুল ফেলে দিয়ে ছদ্মবেশ ধারণ করে ঘুরে বেড়াতো বলে জানায় স্থানীয়রা।

ফতুল্লা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আসলাম হোসেন জানান, একটি চক্র ডাকাতির প্রস্তুতি চালাচ্ছে, এমন খবর পেয়ে পুলিশ অভিযান চালিয়ে দুর্ধর্ষ অপরাধী ফরহাদ ওরফে আহাদকে গ্রেফতার করে। তবে তার সহযোগীরা পালিয়ে যায়।

উপরে