NarayanganjToday

শিরোনাম

কবরস্থানের পাশে গার্মেন্টস কর্মীকে ধর্ষণ, আসামী রিমান্ডে


কবরস্থানের পাশে গার্মেন্টস কর্মীকে ধর্ষণ, আসামী রিমান্ডে

রূপগঞ্জে গার্মেন্টস কর্মীকে (২২) ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার রিকশা চালক শাহীন বীরকে (২৬) দুই দিনের রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ।

শুক্রবার (৮ জানুয়ারী) নারায়নগঞ্জের সিনিয়র জুডিসিয়াল মাজিস্ট্রেট ফাহমিদা খাতুনের আদালতে ৭ দিনের রিমান্ড চেয়ে পুলিশ আদালতে উঠালে ২ দিন মঞ্জুর করে বিচারক।
রিমান্ডের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কোর্ট পুলিশের এএসআই অর্জুন কুমার।

রিমান্ডকৃত ওই রিক্সা চালক কিশোরগঞ্জ সদর থানার বীর ধামপাড়া এলাকার মো. হারুন বীরের ছেলে শাহীন বীর (২৬)। আসামির বর্তমান ঠিকানা রূপগঞ্জ গোলাকান্দাইল নতুন বাজার (ইয়াকুব আলীর) বাড়ীর ভাড়াটিয়া।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, আসামি শাহীন বীর পেশায় একজন ব্যাটারি চালিত অটোরিক্সা চালক। সেখানেই একটি গার্মেন্টস প্রতিষ্ঠানে কাজ করত ওই নারী। দিবাগত ১ জানুয়ারি রাত ১২ টায় কর্মস্থল বের হয় ওই নারী। তখন চালক শাহীন আগে থেকেই রিক্সা নিয়ে দাঁড়িয়ে থাকে সেখানে। নারী বাড়ি যাবে বলে তার রিক্সায় উঠে। কিন্তু শাহীন বীর তার বাড়ি যাওয়ার রাস্তা না গিয়ে উল্টো পথে যায়। তাড়াতাড়ি করে নিয়ে যায় রূপগঞ্জের গোলাকান্দাইল নতুন বাজার বাঘমোচড়া কবরস্থানের পাশে। এরপর প্রথমে ধারালো ছুড়ির ভয় দেখিয়ে পড়নের ওড়না দিয়ে মুখ ও রশি দিয়ে হাত পা বেঁধে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে ওই গার্মেন্টস কর্মীকে। এরপর ধর্ষণ শেষে স্বর্ণের ঝুমকা ও মোবাইল ফোন নিয়ে যায়।সে সময় নারীটি লোক লজ্জার ভয়ে বিষয়টি কাউকে বলেনি। কিন্তু গত ৪ জানুয়ারি চালক শাহীন বীর ওই নারীর আইটেল সিমের ফোন থেকে নারীর স্বামীর নাম্বারে ফোন করে বলে যে, তার স্ত্রীকে সে জোরপূর্বক ধর্ষণ করেছে। এরপর স্বামী ঘটনার বিস্তারিত জানতে চাইলে ওই নারী ঘটনা সব খুলে বলে। তারপর ওই নারী ৮ জানুয়ারি রূপগঞ্জ থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন

উপরে