NarayanganjToday

শিরোনাম

না.গঞ্জের অর্থনীতি সমৃদ্ধ আরও দৃঢ় করতে সহযোগীতা চাইলেন ডিসি


না.গঞ্জের অর্থনীতি সমৃদ্ধ আরও দৃঢ় করতে সহযোগীতা চাইলেন ডিসি

নবাগত জেলা প্রশাসক মুস্তাইন বিল্লাহ বলেছেন, নারায়ণগঞ্জ গুরুত্বপূর্ণ ও ঐতিহ্যবাহী জেলা। সারাদেশের মানুষ নারায়ণগঞ্জকে চিনেন, জানেন, মুক্তিযুদ্ধের অনেক বীরত্বগাঁথা আছে আমাদের এ নারায়ণগঞ্জ।

সদ্য জেলা প্রশাসক হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করায় বৃহস্পতিবার (০৭ জানুয়ারি) বিকেলে বন্দর খেয়াঘাট সংলগ্ন মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবনে   সংবর্ধনা অনুষ্ঠান  ও মুক্তিযোদ্ধাদের সাথে মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে  তিনি একথা বলেন।

ডিসি মুক্তিযোদ্ধাদের উদ্দেশ্যে বলেন, আপনারা আমার বয়োজ্যেষ্ঠ,  আপনাদের চেহারার দিকে তাকালে আমি আমার বাবার প্রতিচ্ছবি দেখতে পাই। আমার বাবা একজন মুক্তিযোদ্ধা এবং আপনারা আমার পিতৃতুল্য। আমি যতদিন আছি এই জেলায় আপনাদের জন্যে আমার দরজা সবসময় খোলা থাকবে। আপনারা যারা মুক্তিযোদ্ধারা রয়েছেন শুধু স্কুলের ভর্তি নয়, বইয়ের জন্যে নয়, শেষ আশ্রয়স্থল হিসেবে এবং জেলা প্রশাসক হিসেবে আমি আপনাদের পাশে থাকবো। যদি কোনো বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তান কিংবা তাদের নাতি-নাতনীদের লেখা পড়ার অভাব হয় আর্থিক কারণে তাহলে আমকে বলবেন। যদি কেউ সমস্যায় পরেন অনুগ্রহ করে আমাকে জানাবেন।

তিনি বলেন, আপনারা লাল সবুজের পতাকা এনে দিয়েছেন। আপনারা মুক্তিযুদ্ধ করেছেন, আপনারা ফিরে আসবেন এ প্রত্যাশা ছিলোনা। রাষ্ট্র বা সরকার আপনাকে যে সম্মান দেখায়, সেই সম্মান আপনারা পেতেন বা না পেতেন সেটি কখনো চিন্তা করেননি। আমরা আপনাদের রাষ্টের পক্ষ থেকে নারায়ণগঞ্জের সম্মান দিতে চাই। আমি এইটুকু আশ্বস্ত করতে চাই, প্রত্যেক বীর মুক্তিযোদ্ধা আমার সম্মান পাবেন এবং আমার কাছ থেকে সহযোগীতা পাবেন। আমরা কোভিড মহামারীর মধ্যে আছি, এ মহামারীতে আমরা আপনাদের কোনোভাবে হারাতে চাই না। এজন্য আপনারা নিজে সুস্থ থাকবেন এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলবেন। আপনাদের চিকিৎসার জন্যে মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক মন্ত্রনালয় থেকে আমাদের হাসপাতালগুলোকে টাকা দেয়া হয়েছে সেখানে যাবেন। কারো যদি চিকিৎসা করতে কোনো সমস্যা হয় তাহলে আমাকে জানাবেন। আমি আপনাদের পাশে থাকবো ইনশাআল্লাহ।

তিনি সর্বশেষ বলেন, নারায়ণগঞ্জের অর্থনীতি সমৃদ্ধ যাতে আরও দৃঢ় হয়, পরিবেশ যাতে ভালো থাকে। সেজন্য আমি জনপ্রতিনিধি, বীর মুক্তিযোদ্ধা, সাংবাদিক ও সুশীল সমাজ সহ সকলের সহযোগীতা চাই।

নারায়ণগঞ্জ জেলা মুক্তিযোদ্ধা ইউনিট কমান্ডের সাবেক কমান্ডার মোঃ আলীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন,সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাহিদা বারিক,জেলা মুক্তিযোদ্ধা ইউনিট কমান্ডের কমান্ডার শাহজাহান ভূইয়া জুলহাস  রূপগঞ্জ উপজেলা ইউনিট কমান্ডের ডেপুটি কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা আমানউল্লাহ, সোনারগা উপজেলা ইউনিট কমান্ডের ডেপুটি কমান্ডার উসমান, বন্দর  উপজেলা ইউনিট কমান্ডের ডেপুটি কমান্ডার কাজী নাসির, আড়াইহাজার উপজেলা ইউনিট কমান্ডের ডেপুটি কমান্ডার রুহুল আমিন প্রমুখ।

উপরে